শুক্রবার, ১৪ Jun ২০১৯, ০৬:৫৬ পূর্বাহ্ন

Translator
Translate & English
সংবাদ শিরোনাম
স্মরনে নবাবসিরাজউদ্দৌলা। হলো না সব বাংলার ঐতিহ্যবাহী নবাবি ব্যাপার স্যাপার। প্রধানমন্ত্রী:-সংসদে সত্যিকারের শক্তিশালী বিরোধী দল চেয়েছিলাম ৭ নম্বর বিপদ সংকেত মোংলা পায়রা বন্দরসহ ৯ জেলায় । নগরীতে আমিনুল হকের মাগফিরাত কামনায় দোয়া মাহফিল শ্রমেরমর্যাদা, ন্যায্যমজুরি, ট্রেডইউনিয়নঅধিকারওজীবনেরনিরাপত্তারআন্দোলনশক্তিশালীকরারদাবিনিয়েআশুলিয়ায়মেদিবসপালন । সোনারগাঁয়ে ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করেছে স্থানীয়  প্রভাবশালী  মাদকব্যবসায়ী । জেলা খুলনার দাকোপে ব্রোথেলের নারীজাগরনী সংঘের সভানেত্রী রাজিয়া বেগম হাতিয়ে নিয়েছে লক্ষলক্ষ টাকা। ঘু‌র্ণিঝড় ফ‌নি আঘাত আনতে পা‌রে ৪ মে, য‌দি বাংলা‌দে‌শে আঘাত হা‌নে ত‌বে্রে আক‌টি সিডর হ‌তে পা‌রে বাংলা‌দে‌শে।  গাজীপুরে ফ্রেন্ডস ট্যুরিজম আয়োজন করলো সাধারণ জ্ঞান প্রতিযোগিতার ।
কুমিল্লা জেলার সদর উপজেলার ৩নং দক্ষিণ দূর্গাপুর ইউনিয়নের নাগরিকদের ঘটে যাওয়া ঘটনা !

কুমিল্লা জেলার সদর উপজেলার ৩নং দক্ষিণ দূর্গাপুর ইউনিয়নের নাগরিকদের ঘটে যাওয়া ঘটনা !

এম এ কাউসার তুষারঃজেলা কুমিল্লার সিটি কর্পোরেশনের পশ্চিম সীমান্তিবর্তী ৩নং দক্ষিণ দূর্গাপুর ইউনিয়ন। তথ্য মতে ইউনিয়নের মানুষ শান্তি প্রিয় হওয়া স্বত্বেও তাদের পড়তে হচ্ছে ভিন্ন নাগরিক বিড়ম্বনায়-শিশু শ্রম যা নাগরিকদের ভাবায়, শিশু শ্রম রোধ করে সরকারি বা বেসরকারি উদ্যোগে তাদের শিক্ষা ক্ষেত্রে প্রবেশ করানো উচিৎ ও এই সকল শিশুদের অভিভাবকদের আইনের আওতায় এনে শাস্তি প্রদান করার সময় এসেছে মনে করেন অনেকে, শিক্ষা ব্যবস্থাপনায় মজার স্কুল, অপাজেয় বাংলাদেশ, রিকভারি বাংলাদেশ এর মত অলাভজনক শিক্ষা ব্যবস্থা স্থানীয়ভাবে শুরু করে পথ শিশুদের শিক্ষা সহায়ক পরিবেশ তৈরীর করারও তাগিদ দেন তারা। তথ্য মতে-উক্ত ইউনিয়নের মাধ্যমিক বিদ্যালয়, উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, কলেজ, মাদ্রাসা, এতিমখানা শিক্ষার্থীর তুলনায় অপ্রতুল, বেসরকারি পর্যায়ে কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। ইউনিয়নে মহিলা কলেজ করা প্রয়োজন মনে করে অভিভাবকগণ।

স্বাস্থ্য খাতে বেহাল অবস্থা-কমিউনিটি হাসপাতাল থাকলেও অপরিকল্পিতভাবে তা চালিত হয়, স্থানীয় ইউপি কার্যালয়ে প্রাথমিক চিকিৎসার ব্যবস্থা থাকলেও মিলে না চিকিৎসা প্রদানকারী ব্যক্তির-চিকিৎসা নিতে আসা নাগরিকগণ তাকে মাসে কয়েকদিন পেলেও পাচ্ছেনা পর্যাপ্ত ঔষধ! ঔষধ যাচ্ছে কোথায়? এত সব ভোগান্তির মধ্যে কাটাতে হচ্ছে স্থানীয় নারীদের, সূত্র জানান-নাগরিকগণের বরাদ্দ ঔষধ মিলছে খোলা বাজারে-আর ঐ বরাদ্দকৃত ঔষধের দাবীদার রোগীগণ ঔ ঔষধ কিনছে চড়া মূল্যে। যা প্রতিরোধ করে সঠিক লোক নিয়োগ দিয়ে, পূর্বে ঘটানো অনিয়মকারীকে আইনের আওতায় এনে নাগরিকদের স্বত্বি প্রদান করা প্রয়োজন মনে করেন-সুশীল সমাজ।

আর বি.জি.ডি মহিলাদের জন্য বরাদ্দকৃত চাল পরিমাণ কম পাচ্ছে তারা। তাদের হাড়িতে চাল পৌঁছার আগে-চাল পৌঁছে যাচ্ছে কালো বাজারের গুদামে-তেমনি সূত্রে তথ্যে মতে জানান-উক্ত ইউনিয়নের বলরামপুর বাজারের গুদাম ভর্তি চাল পাওয়া যায়, এই ব্যাপারে ৩নং দক্ষিণ দূর্গাপুর ইউনিয়ন কার্যালয় এর সচিব শাহ আলম এর কাছে জানতে চাইলে তিনি এই ব্যাপারে কিছু জানেন না জানান, সুশীল সমাজের প্রশ্ন? ওনার না জানা স্বত্বে এত বস্তা চাল কি করে বেসরকারি লোকের দোকানে জমা হয়? খোলা বাজারের ন্যায্য মূল্য চালের আরও বেহাল অবস্থা-নির্ধারিত ওজনের চেয়ে কম দেয়া হয় পরিমানে ও নামে মাত্র কয়েকজনকে দিয়ে ন্যার্য্য মূল্যের চাল বেশী লাভের আশায় চাল সরাসরি নাগরিকদের না দিয়ে খোলা বাজারে তা বিক্রি করে দেয়া হয়, সূত্র জানান-ইউনিয়নের ডিলার নিয়োগ প্রাপ্তরা তথ্য মতে এই অবৈধ নাগরিক ঠকানোর কাজে লিপ্ত-জানান চালের গ্রাহকগণ। সুশীল সমাজ এই ব্যাপারে জানান-কর্তৃপক্ষ মাঠ পর্যায়ে একটু সুক্ষ্মভাবে নজর দিলেই সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন রোধ করা সম্ভব।

ইউনিয়নের প্রবেশ পথ ধর্মপুর, দৌলতপুর, শাসনগাছা এলাকার প্রায় সব সড়কেরই বেহাল অবস্থা-নামে মাত্র সড়ক মেরামতের কাজ শুরু করলেও তাও ধীরগতি-যা পরিবহনের অবাধ চলাচলের বাঁধার প্রদান কারণ, এতে পরিবহন মালিক ও শ্রমিকরা অসন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন।

 

রহিমপুর সড়ক এর পাশে অবস্থিত উক্ত ইউনিয়ন এর ভূমি কার্যালয় তথ্য মতে-একজনের ভূমির খারিজ অন্য জন টাকা দিয়ে তা করে, যার কোন আইনী ভিত্তি নেই, ভূমি কার্যালয় এর কর্মচারীরা এক সময় বদলী হয়ে যায়-কিন্তু বিবাদ এর সূত্রপাত তারা জেনে বুঝে করে থাকেন, এই জেনে যে-আমি তো এক সময় এখানে থাকবো না। নাগরিকদের উক্ত কার্যালয়ে দুর্নীতিবাজ হতে সতর্ক থাকার পরামর্শ দেন একভোক্তভোগী। তিনি এও জানান-ইতি মধ্যে কিছু অসাধু ভূমি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আইনের আওতায় আনা হচ্ছে-এর জন্য কাজ করছে বিশেষ টিম। যারা পর্যায়ক্রমে প্রত্যেকটি কার্যালয়ে গোপন তথ্য সংগ্রহ করে এই কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে। সূত্র জানান ইউনিয়নে-পর্যাপ্ত বন্দোবস্তহীন খাস ভূমি থাকলেও নেই বাচ্চাদের জন্য খেলার উন্মুক্ত স্থান। ভূমি ব্যবস্থাপনায় ইউনিয়ন ভূমি অফিস সঠিক কাগজপত্রাদি প্রদান করা স্বত্বেও ভূমি মালিকদের সেবা দিতে সময় ক্ষেপন করছে। উক্ত কার্যালয়ের কোন কোন অফিস স্টাফ দাপ্তরিক কাজ ফেলে জমি বেচা-কেনার দালালি করা, অন্যান্য ভূমি অফিসে ব্যবসায়িক কাজে যাওয়া অব্যাহত রেখেছে। এতে নাগরিকগণ সঠিক সেবা হতে বঞ্চিত হয়, সঠিক সময় তাদের কার্যালয়ে না পেয়ে। আবার কোন ক্ষেত্রে বন্ধের দিন অফিসে এসে ব্যক্তিগত ব্যবসার কাজ সম্পন্ন করায়- জনমনে বিরুপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হচ্ছে। অনেক ভূমিহীন নাগরিক খাস ভূমি বন্দোবস্ত নিতে আবেদন করেও মাসের মাস ঘুরছে-সুরাহা করছে না উক্ত কার্যালয়! স্বাধীনতার পক্ষের শক্তিকে রায় দিয়ে এর সঠিক সমাধানের অপেক্ষায় রয়েছে-তথ্য মতে ইউনিয়নে অবস্থিত দৃশ্যমান খালের মধ্যে মঠপুরুষ্কুনী-খেতাসার-নোয়াপাড়া খাল অন্যতম-যার দু’পাশের রাস্তা পাকা করার কথা থাকলেও তার কোন কার্যকারিতা নেই। সাম্প্রতিক মাটি ভরাটের কাজ শুরু করলে তা করা হচ্ছে নি¤œমানের, এই প্রকল্পটি সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করলে যাত্রী ও পরিবহনের সময় বেঁচে যেতো, জ¦ালানী সাশ্রয় হতো ও নাগরিকগণ তাদের পরিবার-পরিজন নিয়ে পর্যাপ্ত বিনোদনের সুবিধা পেতো। খেতাসার নোয়াপাড়া, চম্পকনগর মৌজায় অবস্থিত খাল এর দৃশ্যমান নেই। যা দখল করে আছে কিছু দুষ্কৃতকারী-খালটি ম্যাপ অনুযায়ী পূনখনন করলে অত্র এলাকার কৃষি নির্ভর মানুষদের স্বাভাবিকভাবে পরিবার-পরিজন নিয়ে কৃষি ক্ষেত্রে আয় করে রাষ্ট্রে ভূমিকা আরো বেশী রাখতে পারতো।
উক্ত ইউনিয়নে গ্রাম পুলিশ থাকলেও-ছিঁচকে চোরের উৎপাত লেগেই থাকে-কিছুদিন পূর্বে তথ্য মতে- খেতাসার চৌমুহনীতে জনতা হার্ডওয়্যার দোকানে চুরি হয়-নাগরিকগণের প্রশ্ন তবে গ্রাম পুলিশের ভূমিকা কি?

অবৈধ অনুমোদনহীন বিভিন্ন কারখানা গড়ে উঠছে বাসা ভাড়া নিয়ে, তাদের এই বায়ু দূষণ হতে প্রকৃতি ও নাগরিকদের স্বাভাবিকভাবে বাঁচাতে ভাম্যমান   আদালতকে অভিযান চালিয়ে যেতে অনুরোধ করছে পরিবেশবিদ গণ।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




Translate & English
Design & Developed BY ThemesBazar.Com