শুক্রবার, ১৮ জানুয়ারী ২০১৯, ০৭:৩৯ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম
“অভিনন্দন” সাধারন শ্রমিকদের আতঙ্কিত হওয়া কারন নেই।  নাগরিক-হয়রানীর শিকার হচ্ছে খুলনা দৌলতপুর ভূমি অফিসে কুমিল্লায় মাটি চাপা দেয়া অজ্ঞাত তরুণের লাশ উদ্ধার দাকোপের বাজুয়ায় ধানের পালায় আগুন লাগিয়ে সাড়েনয় বিঘা  বিঘা জমির ধান্য নষ্ট করেছে দুর্বিত্তরা। সারা দেশে ৬৪ হাজার বাড়ি তৈরী করে দেবে আ.লীগ সরকার : ঠাকুরগাঁওয়ে প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান গত অর্থ বছরে চৌদ্দ কোটি টাকার মত রাজস্ব জমা দেওয়া হয়েছে- খুলনা দৌলতপুর সাবরেজিষ্টার কার্যালয় এ- বেনাপোলের পুটখালী সিমান্ত থেকে ভারতীয় পিস্তল উদ্ধার বেনাপোল পোর্ট থানার ওসি শেখ আবু সালেহ মাসুদ করিম সন্ত্রাস, মাদকদ্রব্য নির্মুল ও আইন শৃংখলা পরিস্থিতি উন্নতির ক্ষেত্রে বিশেষ অবদান রাখায় যশোর জেলার শ্রেষ্ঠ নির্বাচিত হয়েছেন আইটি খাতে বিনিয়োগ করতে আগ্রহী জাপান ও বাংলাদেশ

ক্রীড়াঙ্গনে নির্যাতনের কলঙ্ক

দুই শ্যুটার আব্দুল্লাহেল বাকী ও শাকিল আহমেদের কমনওয়েলথ গেমস রুপা জয়ের মধ্য দিয়ে বছর শুরু হয়েছে এবার। বাকী টানা দ্বিতীয় আসরে রুপা জিতলেন, পিস্তল শ্যুটিংয়ে শাকিলের পদক ২৮ বছর পর। গত ডিসেম্বরে এশিয়ান শ্যুটিংয়ে রুপা জিতে অর্ণব শারার খেলেছেন এবারের যুব অলিম্পিকে, সেখানে দশম হয়ে ফিরেছেন এই তরুণ শ্যুটার।

শ্যুটিংয়ে বছর শেষে আশার জায়গায় অবশ্য হতাশা ভর করেছে। এশিয়ান গেমস থেকে শ্যুটাররা খালি হাতে ফিরেছেন সে কারণে নয়, বরং এশিয়ান এয়ারগানে কোনো পদক না জেতাটা ছিল হতাশার। অর্থাভাবে ডেনিশ কোচ ক্লাভস ক্রিস্টিয়েনসেনকে বিদায় দিতে হয়েছে, তাতে অলিম্পিক প্রস্তুতিতে লেগেছে জোর ধাক্কা। যোগ্যতা অর্জন করে আর্জেন্টিনায় এবার যুব অলিম্পিকে খেলেছে হকি দলও। সেখানে কানাডাকে হারিয়ে দারুণ কিছুর ইঙ্গিত দিলেও শেষ পর্যন্ত অবস্থানটা ধরে রাখতে পারেননি আরশাদ হোসেনরা। জাতীয় হকি দল আগের বছর দারুণ আলোচনায় ছিল ঢাকায় এশিয়া কাপ হওয়ায়। এ বছর এশিয়ান গেমসে ওমানকে হারিয়ে ষষ্ঠ হওয়াটাই বাংলাদেশের প্রাপ্তি। তবে বছর শেষে হকি মূলত আলোচনায় লিগের কারণে। ঊষাকে ছাড়াই লিগ জমেছে। দলবদলের বাজারে তিন নম্বরে থাকা মোহামেডান এক নম্বরের জন্য জোর লড়াই করে লিগ জমিয়ে তুলেছে। কিন্তু শেষটা হয়েছে কলঙ্কিত। মোহামেডান-মেরিনার্সের খেলোয়াড়-কর্মকর্তাদের উচ্ছৃঙ্খলতায় শেষ পর্যন্ত সেই ম্যাচ হতেই পারেনি। দীর্ঘ পাঁচ মাস পর ফেডারেশনের গভর্নিং বডির সভায় হয়েছে শিরোপার সিদ্ধান্ত। ট্রফি গেছে সাদা-কালোদের ঘরেই। কিন্তু গোলমালের জেরে পাঁচ বছর নিষিদ্ধ হয়েছেন মোহামেডান ও মেরিনার্সের দুই কর্মকর্তা। দাবায় অলিম্পিয়াডের বছর এটি। কিন্তু সেখানে প্রত্যাশা ছোঁয়নি গ্র্যান্ড মাস্টারদের পারফরম্যান্স। আলোচনায় ছিল বরং ফাহাদ রহমান। জর্জিয়ার ওই আসর থেকেই আন্তর্জাতিক মাস্টার নর্ম এসেছে তাঁর। সর্বোচ্চ ৭ পয়েন্ট নিয়ে জিয়াউর রহমানের সঙ্গে বাংলাদেশ দলের সেরা পারফরমারও এ দাবাড়ু। অলিম্পিয়াডে যাওয়ার আগেই অবশ্য ফাহাদ চমক দেখায় চট্টগ্রামে গ্র্যান্ড মাস্টারস দাবা জিতে। চার গ্র্যান্ড মাস্টারকে হারিয়ে তাঁর ওই শিরোপা জয় সোনায় সোহাগা হতে পারত যদি গ্র্যান্ড মাস্টার নর্মও মিলত। এই ফাহাদ জাতীয় দাবায় অবশ্য অনুজ্জ্বল। গ্র্যান্ড মাস্টার জিয়াউর রহমানের চতুর্দশ শিরোপা জয়ের এ আসরে খেলেনইনি অন্য দুই গ্র্যান্ড মাস্টার আব্দুল্লাহ আল রাকিব ও এনামুল হোসেন। এর কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে এনামুল বলেছেন যে, এক জাতীয় দাবা ও অলিম্পিয়াড ছাড়া শীর্ষ দাবাড়ুদের নিয়ে ফেডারেশনের উৎসাহব্যঞ্জক কোনো কর্মকাণ্ড না দেখেই খেলা থেকে উৎসাহ হারিয়েছেন তাঁরা। লিগে অবশ্য খেলেছেন এই দুজন, চ্যাম্পিয়নও হয়েছে তাঁদের দল সাইফ স্পোর্টিং। তবে সাইফের একচেটিয়া শিরোপা জেতা এবারের লিগের মান নিয়েও প্রশ্ন তুলেছে।

২০১৬-র এসএ গেমসে সোনা জিতে ভারোত্তোলনকে সবার মনোযোগে এনেছিলেন মাবিয়া আক্তার। সেই ভারোত্তোলনই এ বছর শেষে আবার সবার আলোচনার কেন্দ্রে এসেছে, কিন্তু সেটা ভীষণ নেতিবাচক কারণে। ফেডারেশনেরই এক কর্মচারীর দ্বারা ধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক নারী ভারোত্তোলক, মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে তাঁকে হাসপাতালেও ভর্তি করা হয়েছে—কালের কণ্ঠে এমন খবর প্রকাশের পর নড়েচড়ে বসে গোটা ক্রীড়াঙ্গন। দোষীর শাস্তির দাবিতে সরব হয় খেলোয়াড়-সংগঠকরা। সংগঠক কামরুন নাহার ডানার উদ্যোগে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সেই দাবিতে মানববন্ধন হয়। অথচ আশ্চর্য, বছর শেষ হয়ে এলেও দোষীর বিরুদ্ধে কোনো শাস্তিমূলক ব্যবস্থা দূরে থাক, ফেডারেশন এর তদন্তই শেষ করতে পারেনি। মেয়েটির মা বাদী হয়ে থানায় মামলা করলেও ধরা পড়েনি দোষী। এসবের মাঝেই মাবিয়া ও স্মৃতি আক্তার ইসলামিক সলিডারিটি স্পোর্টস ফেডারেশনের আন্তর্জাতিক ভারোত্তোলনে রুপা জিতে খেলাটাকে আবার ইতিবাচক কারণে খবরে আনেন। বছরের শেষভাগে ব্যাডমিন্টনে হয়ে গেছে ইন্টারন্যাশনাল চ্যালেঞ্জ। যেখানে বাংলাদেশের আশাবাদী হওয়ার মতো পারফরম্যান্স সামান্যই। মেয়েদের মধ্যে একজন শুধু এককের দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠতে পেরেছিলেন। ছেলেদের কেউ কোয়ার্টার ফাইনালে উঠতে পারেননি। তবে প্রি-কোয়ার্টার খেলায় ১৫ বছর বয়সী গৌরব সিংহ মনোযোগ কেড়েছে, সিনিয়রদের হারিয়ে এর আগে সামার ওপেন জেতা এই কিশোর দাবি রাখে এখন পরিচর্যার। জাতীয় চ্যাম্পিয়ন সালমান প্রি-কোয়ার্টার থেকে বিদায় নিয়ে আফসোস করেছেন প্রস্তুতির ঘাটতির। মেয়েদের বিভাগের গত কয়েক বছরের সেরা দুই খেলোয়াড় শাপলা আক্তার ও এলিনা সুলতানা প্রথম রাউন্ড থেকে বিদায় নিলেও দ্বৈতের সেমিফাইনাল খেলেছেন। অবশ্য নেপালের বিপক্ষে একটি ম্যাচ জেতাই তাঁদের অর্জন।

ইন্টারন্যাশনাল চ্যালেঞ্জের পর পর ইন্টারন্যাশনাল জুনিয়রে আবার বাংলাদেশের জয়জয়কার। তিনটি সোনা জিতেছে স্বাগতিকরা। তিনটিতেই হয়েছে অল বাংলাদেশ ফাইনাল। তবে একটু ‘কিন্তু’ আছে এ সাফল্যে। এককের চ্যাম্পিয়ন লোকমান ফাইনালে উঠতে একটি ম্যাচে শুধু মালদ্বীপের এক খেলোয়াড়কে হারিয়েছেন। টুর্নামেন্টে ভারতের যে একজন খেলোয়াড় অংশ নিয়েছেন, বালিকা এককে সেই ত্রেসা জলিই চ্যাম্পিয়ন। ইন্টারন্যাশনাল চ্যালেঞ্জে ভালো করতে না পারার আক্ষেপ তাই জুনিয়রের তিন সোনায়ও অপূরণীয়। জুনিয়র আসরটি যে নামেই ছিল আন্তর্জাতিক, মানে মোটেও নয়।

এ বছর ভলিবল জাতীয় দল বরং উল্লেখযোগ্য ফল করেছে প্রথমবারের মতো এশিয়ান ভলিবল চ্যালেঞ্জ কাপে অংশ নিয়ে। শিরোপা জেতারও আশা জাগিয়েছিলেন হরশিত বিশ্বাসরা। শেষটা সেভাবে না হলেও ইরাক, হংকং, সৌদি আরবের মতো দলগুলোর বিপক্ষে প্রথম দেখাতেই দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে সেমিফাইনাল খেলা বাংলাদেশ আগামী দিনের জন্য মূল্যবান আত্মবিশ্বাস সঙ্গী করেছে এই আসরই। এ বছরই হয়েছে বঙ্গবন্ধু তৃতীয় এশিয়ান সেন্ট্রাল জোন ভলিবল। এবার শিরোপা ধরে রাখা না গেলেও উত্তেজনাপূর্ণ এক ফাইনাল ঠিকই উপহার দিয়েছেন তারা।

জাতীয় সাঁতার হয়নি এ বছরও। আন্তর্জাতিক পর্যায়েও উল্লেখ করার মতো পারফরম্যান্স নেই কোনো সাঁতারুর। অ্যাথলেটিকসে নিয়মমাফিক জাতীয় মিট হয়েছে। কিন্তু দিনবদলের মতো প্রতিশ্রুতির ঝলক নেই কারো পারফরম্যান্সে। বিশ্ব যুব অ্যাথলেটিকসে গত বছরই সেমিফাইনাল খেলে আলো কেড়েছিলেন জহির রায়হান। এ বছর জাতীয় মিটেও শ্রেষ্ঠত্ব ধরে রেখেছেন তিনি। ফুটবল, ক্রিকেটের বাইরে ক্রীড়াঙ্গনের অন্য খেলাগুলোতে আশার দোলা তাই সামান্যই। দীর্ঘদিন পর এশিয়ান গেমসে কোনো পদক পায়নি বাংলাদেশ। নতুন বছর কী নিয়ে অপেক্ষায় কে জানে। দক্ষিণ এশীয় গেমস হওয়ার কথা এ বছর। সেই হিসাবে এই খেলাগুলো আবার নতুন করে আসবে আলোচনায়।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




সম্পাদক ও প্রকাশকঃ মোঃ বোরহান হাওলাদার(জসিম)

Design & Developed BY ThemesBazar.Com