মঙ্গলবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৮, ১০:৪৩ অপরাহ্ন

সাবেক এসপি হারুনের(বর্তমানে ডি.এম.পিতে কর্মরত) ১৫৩২ কোটির টাকার বৈদেশিক মুদ্রা যুক্তরাষ্ট্রে আটক!

সাবেক এসপি হারুনের(বর্তমানে ডি.এম.পিতে কর্মরত) ১৫৩২ কোটির টাকার বৈদেশিক মুদ্রা যুক্তরাষ্ট্রে আটক!

কি দেখার কথা কি দেখছি,,কি শুনার কথা কি শুনছি”

সাবেক এসপি হারুনের(বর্তমানে ডি.এম.পিতে কর্মরত) ১৫৩২ কোটির টাকার বৈদেশিক মুদ্রা যুক্তরাষ্ট্রে আটক!
সাধারণ জনগনের নিন্দা।
গাজীপুরের সাবেক এসপি হারুন অর রশিদের স্ত্রীর ১৫৩২ কোটির টাকার সমপরিমান বৈদেশিক মুদ্রা আটকে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই। এই বিপুল পরিমান অর্থ বাংলাদেশ থেকে পাচার করেছিলেন হারুন। যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্যের নিউ হাইড পার্ক এলাকায় নগদ ৫ মিলিয়ন ডলারে একটি বাড়ি কিনতে গেলে অর্থের উৎস নিয়ে জটিলতা সৃষ্টি হয়। এরপর কেঁচো খুঁড়তে বেরিয়ে আসে সাপ নয় অজগর। একে একে ধরা পড়ে হারুনের স্ত্রীর ১৮০ মিলিয়ন ডলারের সম্পদের পাহাড়, যা পরে আটকে দেয় এফবিআই। এ নিয়ে তদন্ত চলছে। সম্প্রতি গোপন প্রতিবেদনে এবিষয়টি প্রধানমন্ত্রীর অফিসকে জানিয়েছে বাংলাদেশের গোয়েন্দা সংস্থা ডিজিএফআই। সম্প্রতি হারুনকে ঢাকা মেট্রপলিটন পুলিশে ফেরত আনা হয়েছে ৷৷
প্রতিবেদনে আরও জানানো হয়, হারুন গাজিপুরে ১৬৩ বিঘা জমি কিনেছেন, এরমধ্যে শ্রীপুর উপজেলায় ৫৬ বিঘা, কালিগঞ্জে ২২ বিঘা, এবং গাজিপুর সদরে ৮৫ বিঘা রয়েছে। এছাড়া মালয়েশিয়াতে সেকেন্ড হোম প্রজেক্টের অধীনে সরাসরি বিনিয়োগ করেছেন বাংলাদেশী মুদ্রায় ১৮৯০ কোটি টাকা। সেখানকার নাগরিকত্বও নিয়েছেন বলে জানানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১১ সালে এই হারুন অর রশিদ ডিএমপিতে কর্মরত থাকাকালে বিএনপির চীফ হুইপ জয়নাল আবেদীন ফারুককে প্রকাশ্যে পিটিয়ে আহত করে আলোচনায় আসেন। এরপরে ২০১৪ সালে তিনি গাজিপুরের এসপি (যা পুলিশ বিভাগের সবচেয়ে লোভনীয় পদ) পদ হাসিল করেন। টানা চার বছর সে দায়িত্বে তার দুর্নীতির পরিমান ৪ হাজার কোটি টাকার মত হতে পারে জানিয়েছেন পুলিশ বিভাগে কর্মরত তার সহকর্মীরা। হারুনের টকা আটকে দেয়ার খবর পুলিশ বিভাগে চাউর! যে কোনো সময় দেশ ছাড়তে পারেন তিনি।(কপি পোষ্টঃ মিতু আপা)

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




https://www.facebook.com/
Design & Developed BY ThemesBazar.Com