শুক্রবার, ১৭ অগাস্ট ২০১৮, ০৪:২৭ পূর্বাহ্ন

অবহেলিত মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্ভ নিয়ে ব্যবসা

অবহেলিত মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্ভ নিয়ে ব্যবসা

SAMSUNG DIGITAL CAMERA

শেরপুরের ঝিনাইগাতীর সীমান্তে পর্যটন কেন্দ্র গজনী অবকাশে অযতœ অবহেলায় পরে আছে মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্ভ । ১৯৭১ সালে ৪ ডিসেম্বর মুক্ত হয় ঝিনাইগাতী । এ’ স্মৃতিস্তম্ভ নির্মান করা হয় ঝিনাইগাতীর স্বাধীনতা মুক্তির স্মৃতি হিসেবে । কিন্তু পর্যটন কেন্দ্র গজনী অবকাশের সকল স্থানের উন্নয়নের কাজ করলেও প্রশাসনের নজর পরেনি অবহেলিত মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্ভে । সরেজমিনে দেখা যায়, মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্ভটির বিভিন্ন স্থানে ফাটল ধরে গেছে” কোন রকম রঙ করে নতুন করার প্রচেষ্টা করলেও আবার সে’রঙ উঠে পরছে । বৃষ্টি’ ঝড়’ ভমিকম্প ও বড় ধরনের কোন দূর্যোগ হলে যে কোন সময় ভেঙে পড়তে পারে এই মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্ভ । ফলে দ্রুত সংস্কার করা দরকার এই মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্ভের ।

সরেজমিনে আরো দেখা যায়, মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্ভটি পর্যটন কেন্দ্র গজনী অবকাশে হওয়ায় পর্যটকদের কাছে বেশ আকর্শনীয় হয়ে পরেছে । আর কিছু মানুষ সেই আর্কশনের সুযোগ ব্যবহার করে স্মৃতিস্তম্ভের ভিতরে প্রবেশ মূল্য দশ টাকা নির্ধারন করেছে। মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্ভটিতে ব্যবসার স্তম্ভ বানিয়ে ফেলেছে । অনেকে টাকার জন্য প্রবেশ করে দেখছেননা মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্ভটি । তোলতে পাড়ছেনা ছবি” ছড়িয়ে পড়ছেনা ঝিনাইগাতী মুক্তির ইতিহাস। ফলে ঝিনাইগাতীর স্বাধীনতা ও মুক্তির ইতিহাস থেকে দূরে সরে পরছে শিশু কিশোর” ও তরুণ প্রজন্ম আগামীর ভবিষৎ । মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্ভটি শিক্ষর্থীদের জন্য উন্মমুক্ত করার দাবী শিক্ষর্থীদের ।

এ’ বিষয় নিয়ে কথা হয় উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুবেল মাহমুদের সাথে’ তিনি মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্ভটি ব্যপারে দ্রুত পদক্ষেপ নিবেন বলে প্রতিনিধিকে আশ্বাস্ত করেন ।

 

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




https://www.facebook.com/
Design & Developed BY ThemesBazar.Com