শনিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৮, ১২:৩৯ পূর্বাহ্ন

খুলনার দাকোপ থানা পুলিশ প্রশাসন মাদক বিরোধী অভিযান অব্যাহত রেখেছে, সফলতার আলো দেখছে সচেতন মহল।

খুলনার দাকোপ থানা পুলিশ প্রশাসন মাদক বিরোধী অভিযান অব্যাহত রেখেছে, সফলতার আলো দেখছে সচেতন মহল।

দাকোপ খুলনাঃগত কয়েকদিন যাবৎ  দাকোপ থানা পুলিশ মাদক বিরোধী অভিযান চালিয়ে বেশ কিছু চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী ও মাদক সেবীদের  গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে।  পুলিশের এই অভিযানকে স্বাগত জানিয়েছে এলাকার সুশীল সমাজ। এই অভিযান অব্যাহত রাখার জন্য প্রশাসনের প্রতি দাবী জানিয়েছে এলাকার সচেতন মহাল একই সাথে থানা পুলিশ এবং বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্হার একাধিক তালিকায় উপজেলা সদর সহ বেশ কয়েকজন আলোচিত মহিলা মাদক বিক্রেতার নাম উঠে এসেছে এদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় মাদকদ্রব্য আইনে মামলা হয়েছে এবং জেল হাজত থেকে আইনের দুর্বলতার কারনে ফাঁকফোকর দিয়ে বেরিয়ে এসে আবার ও চালিয়ে যায় মাদকের এই রমরমা ব্যাবসা এবং কয়েকটি  মাদক পরিবারের নাম উঠে এসেছে। একই তালিকায় দাকোপের কয়েকজন সাংবাদিকের নাম ও উঠে এসেছে।  আগামী প্রজন্মের নিরাপত্তার কথা ভেবে মাদকের সাথে কোন আপস নয় বরং প্রকৃত অপরাধীরা যেনো কোনক্রমে ছাড় না পায়,  তেমনি করে যেন কোন নিরপরাধ ব্যক্তি  অভিযানে হয়রানীর শিকার না হয়। তার জন্য প্রশাসন সুষ্ট তদন্তকরে ব্যাবস্হা গ্রহন করলে এই অভিযানে আরো সফলতা আসবে। ইতি মধ্যে দাকোপ থানার প্রশাসন পশাংসনীয় ভুমিকা রাখতে সক্ষম হয়েছে মাদক নির্মুল অভিযানে ।এ ব্যাপারে দাকোপ থানার অফিসার ইনর্চাজ (তদন্ত) মনজুরুল হাসান মাসুদের সাথে আলাপ কালে তিনি বলেন দাকোপ থেকে মাদক দ্রব্য নির্মুল না হওয়া পযন্ত এই অভিযান অব্যাহত থাকবে ইতি মধ্যে আমরা বেশকিছু মাদক সেবী ও মাদক বিক্রেতাদের ধরেছি বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্হার তালিকা ভুক্ত মাদক বিক্রেতা বা সেবীদের কোন রকম ছাড় দেওয়া হবেনা বলে অভিপ্রায় ব্যাক্ত করে তিনি আরো বলেন মাদক ব্যাবসায়ী ও মাদক সেবীদের ধরিয়ে দেওয়া  বা  মাদকমুক্ত দাকোপ গড়ে তুলতে হলে সকল সচেতন মহালকে সহযোগিতায় এগিয়ে আসতে হবে।মাদকমুক্ত  দাকোপ গড়তে সকলের সহযোগিতায় প্রয়োজন।
এ ব্যাপারে দাকোপ উপজেলা পরিষদের বারবার নির্বাচিত  চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শেখ আবুল হোসেন আমাদের প্রতিনিধি স্বপন কুমার রায় কে  বলেন, মাদক নির্মূলে আমাদের ফর্মুলা আছে। সরকার মাদক নিয়ন্ত্রণে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহন করেছে। মাদক নিয়ন্ত্রণ নয়, নির্মূলে সব ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হবে। সরকারের সদিচ্ছা আছে। শিক্ষার ক্ষেত্রে নৈতিকতার পাঠ-নির্দেশনা দেয়া হচ্ছে। মাদককে না বলার পাঠ থাকছে। আর মাদক নির্মূলে প্রয়োজন ‘শুট অন সাইট’ (দেখামাত্র গুলি করা)। তিনি বলেন, কে আ’লীগ, কে এমপি’র ছেলে, জজ না ব্যারিস্টারের ছেলে- এসব দেখার সুযোগ নেই। এককথায়, মাদক নির্মূলে সঠিক ব্যবস্থা গ্রহন করা। এ ধরনের কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া না হলে কোনো দিনও মাদক নির্মূল সম্ভব হবে না। অভিযান প্রশাসনকে আরো গতিশীল করে তুলবে, এই প্রত্যাশা সর্বস্তরের সাধরন মানুষের। দাকোপ থানার পুলিশ মাদক নির্মুল অভিযানে আরো সফলতার দ্বারে পৌছে যাক এবং সমাজ থেকে মাদক নির্মুল হোক এটাই কাম্য। সাথে দাকোপ থানা পুলিশ কে ধন্যবাদ জানিয়েছে এলাকার সচেতন মহল।অফিসার ইনচার্জ তদন্ত মনজুরুল হাসান থানা সুত্রে, মাদক বিরোধী অভিযান চালিয়ে ১৪ দিনে উপজেলার বিভিন্ন জায়গা থেকে চিহ্নিত ১৩ জন মাদক ব্যবসায়ী ও সেবনকারীকে আটক করা হয়েছে। ১০ টি মামলায় উদ্ধার করা হয়েছে ২১ পিচ ইয়াবা ও ৩ শত ২৫ গ্রাম গাজাঁ। দুই জন পলাতক রয়েছে তাদের খোজ নেওয়া হচ্ছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




https://www.facebook.com/
Design & Developed BY ThemesBazar.Com